বাংলাদেশে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বিশেষজ্ঞ ও ডেভলপার তৈরিতে‌ মাইক্রোসফটের আগ্রহ প্রকাশ

 প্রকাশ: ১১ জুন ২০২৪, ০১:০২ অপরাহ্ন   |   বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

বাংলাদেশে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বিশেষজ্ঞ ও ডেভলপার তৈরিতে‌ মাইক্রোসফটের আগ্রহ প্রকাশ


মাইক্রোসফট বাংলাদেশে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা - বিশেষজ্ঞ ও ডেভলপার তৈরি, স্টার্টআপদের মধ‌্যে ইন্টারন‌্যাশনাল বিজনেস সক্ষমতা তৈরি এবং সাইবার নিরপত্তা বিষয়ে প্রযুক্তিগত সহযোগিতা প্রদানের আগ্রহ ব‌্যক্ত করেছে।

মাইক্রোসফট বাংলাদেশের ব‌্যবস্থাপনা পরিচালক মো: ইউসুপ ফারুক আজ মঙ্গলবার ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ‌্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জনাব জুনাইদ আহমেদ পলক এর সাথে বাংলাদেশ সচিবালয়ে তার দপ্তরে সৌজন‌্য সাক্ষাৎ করেন। সাক্ষাৎকালে মাইক্রোসফট বাংলাদেশ এ আগ্রহের কথা জানান।

সাক্ষাতকালে তারা স্টার্ট আপ অন মাক্রোসফট ফাউন্ডার প্রোগ্রাম,সাইবার নিরাপত্তা, পরিপূর্ণ ডাটা ও এআই এর জন‌্য একক প্লাটফর্ম তৈরিসহ বিভিন্ন বিষয়াদি নিয়ে মতবিনিময় করেন।

ডাক,টেলিযোগাযোগ ও তথ‌্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী বলেন, এখন আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স (এআই) বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার মাধ্যমে পৃথিবী আরেকটি যুগান্তকারী পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। পরিবর্তনের এই অভিযাত্রায় রয়েছে অনেক চ‌্যালেঞ্জ। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত স্মার্ট বাংলদেশ ভিশন বাস্তবায়নে প্রযুক্তির এ চ‌্যালেঞ্জ মোকাবেলা আমাদের করতেই হবে। দেশের ব্যাংকিং, টেলিকম , আইসিটিসহ সকল খাতে সাইবার সিকিউরিটি নিশ্চিত করতে সাইবার সিকিউরিটি এক্সপার্ট এবং প্রযুক্তির নতুন টুল তৈরিতে মাইক্রোসফট অবদান রাখতে পারে। প্রতিমন্ত্রী বলেন, ২০৪১ সালের উন্নত সমৃদ্ধ স্মার্ট বাংলাদেশ এবং স্মার্ট নাগরিক, স্মার্ট সমাজব্যবস্থা, স্মার্ট অর্থনীতি ও স্মার্ট সরকারব্যবস্থা গড়তে হলে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বা এআইকে বাইপাস করে কিছু করা সম্ভব নয়। তাই এখন আমাদের চ্যালেঞ্জ বা আলোচনার বিষয় হচ্ছে আমরা কতটুকু উদ্ভাবনকে উৎসাহিত করবো এবং কতটুকু অপপ্রয়োগকে নিয়ন্ত্রণ করবো বলে প্রতিমন্ত্রী উল্লেখ করেন।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি এর আরও খবর: