চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী, জানাযায় লাখো মানুষের ঢল

 প্রকাশ: ২৪ মে ২০২৪, ০৭:২৫ অপরাহ্ন   |   শোক ও মৃত্যুবার্ষিকী

চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী,   জানাযায় লাখো মানুষের ঢল


রতন কান্তি দে উখিয়া (কক্সবাজার)  : 


উখিয়া উপজেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরীর জানাযার নামাজ শুক্রবার (২৪ মে) বিকেল ৩ টায় উখিয়া সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। জানাযার নামাজে শোকাহত লাখো মানুষের ঢল নামে। পরে উখিয়া কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ কবর স্থানে মরহুমের লাশ দাফন করা হয়।


বিকেল তিনটায় জানাযার পূর্ব থেকে প্রচন্ড তাপদাহ পড়ছিল। উখিয়া বহুমুখী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের খেলার মাঠ কানায় কানায় ভর্তি। জানাজার মাঠে জায়গা নাই পেয়ে হাজার হাজার মুসল্লী প্রধান সড়কে

জানাজার নামাজ পড়ে। প্রচন্ড তাপদাহের মধ্যে জানাযা শুরুর  ঠিক আগ মুহূর্তেই হঠাৎ গুড়ি গুড়ি হালকা বৃষ্টি নেমে আসে। এতে খানিকটা স্বস্তি নেমে আসে। উপস্থিত মুসল্লীরা বলছেন এই হালকা বৃষ্টি স্রষ্টার রহমতের বৃষ্টি। ঢাকা থেকে গতকাল বৃহস্পতিবার গভীর রাতে তার মরদেহ গ্রামের বাড়ি উখিয়ার ফলিয়া পাড়ায় নিয়ে আসা হলে প্রিয় মানুষকে এক নজরে দেখার জন্য হাজার হাজার নারী পুরুষের ঢল নামে। সর্বত্র শোকের মাতম ছড়িয়ে পড়ে।  


মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা ও শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে জানাযার নামাজের পূর্বে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন জাতীয় সংসদের  হুইপ সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি, মহেশখালী-কুতুবদিয়া আসনের সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক, উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানভীর হোসেন, উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ শামিম হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান, কক্সবাজার পৌর সভার মেয়র মাহবুবুর রহমান চৌধুরী, কক্সবাজার জেলা বিএনপি'র সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য শাহজাহান চৌধুরী,


উখিয়া উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান এড. শাহ জালাল চৌধুরী, সাবেক উপজেলার চেয়ারম্যান মাহমুদুল হক চৌধুরী, কক্সবাজার সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আবছার, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহিনুল হক চৌধুরী মার্শাল,  মরহুমের ছোট ভাই সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা জাফর আলম চৌধুরী, মরহুমের ছোট ভাই আমিনুল হক চৌধুরী, মরহুমের একমাত্র পুত্র আসিফ চৌধুরী।


বক্তারা বলেন, তাঁর মৃত্যুত্বে পুরো জেলা বাসীর অপূরণীয় ক্ষতি  হয়েছে,তিনি শুধু উখিয়ার নেতা ছিলেন না পাশাপাশি উখিয়াবাসী  মানবিক এবং সর্ব মহলের গ্রহণযোগ্য বিচক্ষণ বর্ষীয়ান, অমায়িক ভালো  রাজনীতিবিদকে হারালো।তার মতো নেতৃত্বে বর্তমান প্রেক্ষাপটে অতুলনীয়। সকলের তাঁর রুহের মাগফিরাত বেহেশতে  নসিব কামনা করেন।


উল্লেখ্য, দ্বিতীয় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন উখিয়া সদরের ফলিয়াপাড়া গ্রামের বাসিন্দা মরহুম বদিউর রহমান চৌধুরীর পুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম নুরুল ইসলাম চৌধুরী। ২০০৪ সালের ২৩ মে (রবিবার) বার্ধক্যজনিত কারণে মৃত্যুবরণ করেন সীমান্ত উপজেলার জনপ্রিয় এই রাজনীতিবিদ।২০ বছর পর একই দিনে ২৩ মে (বৃহস্পতিবার) সকাল ১১ টা ৩০ মিনিটে ঢাকার ল্যাব এইড হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করলেন তাঁর ছোট ভাই উখিয়া উপজেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী। তিনি দীর্ঘদিন ধরে নানা জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে ভারতের চিকিৎসাধীন ছিল। সেখান থেকে গত এক সপ্তাহ পূর্বে এসে  সংকটাপণ্ন অবস্থায় ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি হয়ে লাইভ সাপোর্টে জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণের প্রহর গুনছিল।১৯৬৩ সালের ২২ জুন জন্মগ্রহণ করা বর্ষীয়ান এই রাজনীতিবিদের মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিলো ৬১ বছর।পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় উপজেলার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়া হামিদুল হক চৌধুরী চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের লোক প্রশাসন বিভাগ হতে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করেন। তাঁর মৃত্যুতে গভীর শোক ও সমবেদনা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনা ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক, পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। মৃত্যুকালে স্ত্রী, ৩ কন্যা ১পুত্র সহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।


হামিদুল হক চৌধুরী উখিয়ার একমাত্র উচ্চ পর্যায়ের নারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মহিলা কলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ, উখিয়া স্টেশন জামে মসজিদ ও ওয়াকফ্ এস্টেট পরিচালনা কমিটির সেক্রেটারি। এছাড়াও তিনি দীর্ঘ দেড় যুগের ও বেশী সময় দলের দু:সময়ে উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সভাপতি দায়িত্ব সফলতার সাথে পালন করেছেন। এছাড়াও তিনি কক্সবাজার রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ প্রতিরোধ ও প্রত্যাবাসন সংগ্রাম কমিটির সভাপতি ও  উখিয়া প্রেস ক্লাবের আজীবন (দাতা) সদস্য হিসাবে দায়িত্বে।ছিলেন।


অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আস্থাভাজন ও বিশ্বস্ত একজন রাজনৈতিক নেতা ছিলেন। যার ফলশ্রুতিতে অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী প্রধানমন্ত্রী  শেখ হাসিনা রাষ্ট্রীয় সফর সঙ্গী হওয়ার সুযোগ পেয়ে ছিলেন।


অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী কক্সবাজার জেলার উখিয়া উপজেলার রাজাপালং ইউনিয়নের ফলিয়া পাড়া গ্রামের বাসিন্দা। তিনি উখিয়া-টেকনাফ আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য শাহিন আক্তার, উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী ও জেলা পরিষদের সদস্য অধ্যাপক হুমায়ুন কবির চৌধুরী মন্টু চাচা। সাবেক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম চৌধুরী ও আসন্ন উপজেলা পরিষদের নির্বাচনের চেয়ারম্যান প্রার্থী জাফর আলম চৌধুরী ছোট ভাই। সাবেক সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদি ও সাবেক সংসদ সদস্য আলমগীর মোহাম্মদ মাহফুজ উল্লাহ ফরিদের চাচা শশুর। উপজেলা পরিষদের সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ছেনুয়ারা বেগম এর দেবর। উখিয়া উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নিগার সুলতানার স্বামী। জানাযা শেষে তার কফিনে পুষ্প স্তবক দিয়ে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানান কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগ, উপজেলা প্রশাসন, থানা প্রশাসন, হুইপ, সংসদ সদস্যবৃন্দ সহ বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে।

শোক ও মৃত্যুবার্ষিকী এর আরও খবর: